আজ: রবিবার | ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ১২ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ১০ই সফর, ১৪৪২ হিজরি | দুপুর ১২:৫০
শিক্ষা

আড়াইহাজার ব্রীজে নিত্য যানজট

বাংলাদেশ বার্তা | ০৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০ | ১০:১৬ পূর্বাহ্ণ

নারায়ণগঞ্জ সড়ক ও জনপদ বিভাগের আওতাধীন আড়াইহাজার উপজেলা সংলগ্ন দক্ষিণপাড়া স্টিল ব্রীজ ও গোপালদী পৌরসভার রামচন্দ্রদী স্টিল ব্রীজে ট্রাফিক পুলিশ মোতায়েনের দাবি তুলেছে আড়াইহাজারবাসী। প্রতিদিনি যানজটে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে সাধারণ মানুষ। সরেজমিনে দেখা গেছে, গত কয়েক দিন ধরে রামচন্দ্রদী ব্রীজ থেকে চালার চক পর্যন্ত গিয়ে ঠেকেছে যানজট। গ্রামের একটি রাস্তায় এভাবে ভয়াবহ যানজটের কারণে সীমাহীন ভোগান্তিতে পোহাতে হচ্ছে যাত্রীদের। যানজটের কারণ দুটি পুরনো ও ঝুঁকিপূর্ণ স্টিল ব্রীজ। একটি দক্ষিণপাড়া স্টিল ব্রীজ। অন্যটি রামচন্দ্রদী স্টিল ব্রীজ। দু’টি ব্রীজই অত্যন্ত সরু। সিঙ্গেলওয়ে। একটি বাস কিংবা ট্রাক উঠলে মানুষ হেঁটে যাওয়ারও জায়গা থাকেনা। রেলিং নেই। হেঁটে চলতে গিয়ে মানুষ দুর্ঘটনায় পড়ে। প্রতিমাসে কমপক্ষে ২০/২৫ জন লোক ব্রীজ থেকে পড়ে আহত হয়। এদিকে সড়ক ও জনপদ বিভাগের কোন মাথা ব্যাথা নেই। তাছাড়া ইজিবাইক ও বালুবাহী ট্রাক নিয়ম মানেনা। এগুলো যানজটের অন্যতম কারণ। নিতান্ত বিপদে না পড়লে কেউ এ পথে আসেনা। গোপালদীবাজার, রামচন্দ্রী, বিশনন্দী, মানিকপুর বাজার ও আশপাশ গ্রামের অধিবাসীরা জানান, আড়াইহাজার উপজেলার মেঘনা তীরবর্তী বিশনন্দি ইউনিয়নে চলাচলের রাস্তা ছিল ঘুরতি পথে। সাবেক এমপি আঙ্গুর কড়ইতলায় এই বেইলী ব্রীজটি নির্মাণ করেছিলেন। তখনও কড়ইতলায় নৌকা চলতো। এরপর ব্রীজটি পুরোপুরি চালু হলে কড়ইতলা থেকে বিশনন্দি ও মানিকপুর পর্যন্ত বেবিট্যাক্সি চলতো। কড়ইতলা থেকে নাক বরাবর মানিকপুর বাজার পর্যন্ত বাইপাস সড়ক নির্মাণের পর জনগণের চলাচল সহজ হয়। ফলে বাসসহ সব ধরনের যানবাহন চলাচল করছে। অনুসন্ধান করে জানাগেছে, আড়াইহাজার-বাঞ্ছারামপুর সড়ক চালু হলেও এই সড়কের দু’টি পয়েন্টের দু’টি সিঙ্গেল ওয়ে স্টিল ব্রীজ নিয়ে কেহ মাথা ঘামায়নি। সংশ্লিস্ট সকলেই মনে করেছেন কাজ চলে যাবে। না এই ধারণা ধোপে টিকছেনা। ফেরিঘাট চালুর সাথে সাথেই বা আগে এই ব্রীজ দু’টি ভেঙ্গে নতুন ব্রীজ নির্মাণ করা সমীচিন ছিল। তা কেনো হয়নি ? প্রশ্নটি এখন সবার। এত উন্নয়ন হল। সড়ক প্রশস্ত হল। অথচ ব্রীজ দুটি সিঙ্গেল ওয়ে। পরিণতিতে এখন প্রতিদিন যানজটের দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে সাধারণ জনগণকে। নারায়ণগঞ্জের সড়ক ও জনপদ বিভাগের উপসহকারী প্রকৌশলী মো: কাফি হোসেন জানান, চালকরা নিয়ম নীতি না মানার কারণে এই সমস্য সৃষ্টি হচ্ছে। তাছাড়া ও ২/আড়াইহাজার মাসের মধ্যে রামচন্দ্রদী স্টীল ব্রীজের টেন্ডার হওয়ার কথা রয়েছে।





এই বিভাগের আরো সংবাদ




Leave a Reply

%d bloggers like this: