আজ: মঙ্গলবার | ২৬ অক্টোবর, ২০২১ | ১০ কার্তিক, ১৪২৮ | ১৯ রবিউল আউয়াল, ১৪৪৩ | দুপুর ১:৫১

সংবাদ দেখার জন্য ধন্যবাদ

Home » সারাদেশ » চট্টগ্রাম বিভাগ » কুমিল্লা » কুমিল্লায় কাভার্ডভ্যানচাপায় নিহত ২

জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়

২৯ আগস্ট, ২০২১ | ৯:২৪ পূর্বাহ্ণ | বাংলাদেশ বার্তা | 407 Views

বন্দর প্রতিনিধি: জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে গতকাল শনিবার সকালে বন্দর উপজেলা কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করা হয়েছে। গতকাল শনিবার থেকে আগামী ৩ নভেম্বর পর্যন্ত এ মৎস্য সপ্তাহ পালিত হবে। উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ মোস্তফা মিয়ার সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় মাছ চাষের উপকারিতা, জলাশয় সংরক্ষণ, জাটকা নিধন প্রতিরোধ, মাছ মানুষের আমিষ ও আয়ডিনের অভাব পূরণের বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন উপজেলা সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা আঃ সামাদ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, মৎস্য সম্প্রসারণ কর্মকর্তা তাসমীমা বেগম, ক্ষেত্র সহকারী রওশন আরা খানম, ফাতেমা হক, মাছ চাষী সাইদুর রহমান, মামুন ও কামাল। সাংবাদিকদের মধ্যে অংশ গ্রহণ করেন দৈনিক ডান্ডিবার্তার বার্তা সম্পাদক ও বন্দর প্রেসক্লাবের সদস্য নাসির উদ্দিন, প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক জি.এম সুমন, প্রচার সম্পাদক শাহজামাল প্রমুখ। মৎস্য কর্মকর্তা বলেন, ১টি পুকুরে ৩ স্তরে মাছ চাষ করা হয়। যেমন এক প্রজাতির মাছ থাকে পানির উপরিভাগে, আরেক প্রজাতির মাছ থাকে পানির মধ্যভাগে ও আরেক প্রজাতির মাছ থাকে পানির নিচে বা মাটির কাছাকাছি। এভাবে চাষি মাছ চাষ করলে লাভবান বেশী হয়। মানুষেরও মাছে চাহিদা পূরণ হয়। বাংলাদেশ বিদেশে মাছ রফতানি করে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করছে। আমরা মা ইলিশ ও জাটকা নিধন রোধে বদ্ধ পরিকর। মা ইলিশগুলি প্রজজন মৌসুমে মিঠা পানিতে এসে ডিম ছাড়ে। ঐসময় মা ইলিশ ধরা বন্ধ করা হলে দেশে ইলিশ মাছের ঘাটতি থাকেনা। সরকারের এ পদক্ষের কারণে বেশ কয়েক বছর যাবত মানুষ প্রচুর ইলিশ পাচ্ছে। ইলিশ মাছের মধ্যে ৯০ ভাগই স্ত্রী ইলিশ। আর ১০ ভাগ পুরুষ ইলিশ। পুরুষ ইলিশকে অনুসরণ করে হাজার হাজার স্ত্রী ইলিশ মিঠা পানিতে প্রবেশ করে এবং ডিম ছাড়ে। তাই মা ইলিশ রক্ষা করার জন্য সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপ আমরা বাস্তবায়ন করে যাচ্ছি। আর জাতীয় মৎস্য সপ্তাহের মাধ্যমে মাছ চাষি ও জেলেদের মা মাছ রক্ষা ও মাছ চাষের বিভিন্ন  খুটিনাটি বিষয় আমরা তুলে ধরব। এ জন্য আমরা মাইকিং ব্যবস্থা, প্রান্তিক চাষিদের সাথে মতবিনিময়, জাটকা ইলিশ নিধন প্রতিরোধ কর্মসূচিসহ চাষিদের সেবা দেয়া হবে। বন্দরে ১৮৫০টি পুকুর রয়েছে যেখানে মাছ চাষ হচ্ছে। আর জলাশয় রয়েছে ৩২৫.৪০ হেক্টর। আমরা খোলা জলাশয়ে মাছে পোনা অবমুক্ত করা হবে। সবশেষে তিনি সরকারের গৃহীত পদক্ষেপের প্রসংশা করে মতবিনিময় সভা শেষ করেন।



Comment Heare

Leave a Reply

Top
%d bloggers like this: