আজ: রবিবার | ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ১২ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ১০ই সফর, ১৪৪২ হিজরি | সকাল ১১:৩৫
শিক্ষা

বন্দরে নিপা হত্যার আসামীদের শাস্তি দাবিতে মানববন্ধন

বাংলাদেশ বার্তা | ১২ সেপ্টেম্বর, ২০২০ | ৪:৪১ অপরাহ্ণ

বন্দর প্রতিনিধি: বন্দরে গৃহবধূ নিপা হত্যা মামলার আসামীদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবিতে মানব বন্ধন করেছে সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট বন্দর থানা শাখার নেতৃবৃন্দ।  ১০ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় বন্দর প্রেসক্লাবের সামনে হত্যা মামলার আসামীদের ফাঁসির দাবিতে তারা এ মানববন্ধন করে।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, সারা দেশে নারীরা নির্যাতিত হচ্ছে। স্বামীসহ শ^শুড় বাড়ি লোকজনদের অমানবিক নির্যাতনের কারনে বহু নারী অকালে প্রান হারাচ্ছে। চরঘারমোড়া এলাকার ১ সন্তানের  জননী নিপার মত আর কত নারী স্বামী ও শ^শুড় বাড়ি লোকজনদের হাতে প্রান হারাবে। আমরা অনতিবিলম্বে নিপা হত্যা মামলার ঘাতক স্বামী সজল, শ^শুড় নাসের মিয়া, শ^াশুগড়ী আক্তারী বেগম, ভাসুর মুন্না ও দেবর অনিকের দ্রুত দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবি জানাচ্ছি।

সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের বন্দর থানা শাখার আহবায়ক মুন্নী সরদারের সভাপতিত্বে মানব বন্ধনে বক্তব্য রাখেন সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের কেন্দ্রীয় কমিটি সভাপতি আল কাদেরী জয়, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার সাধারন সম্পাদক বেলাল হুসাইন, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের বন্দর থানা শাখার সদস্য সচিব রাকিবুল হাসান রবিন, কবী নজরুল ইসলাম পাঠাগারের আহবায়ক ফাতেমা আক্তার মোক্তা, কবি ও লেখক রহিস মুকুল, সংগঠক নুসরাত জাহান মিজু ও সানজিদা আক্তার ঋতু। মানব বন্ধনে উপস্থিত ছিলেন নিহত গৃহবধূ নিপা আক্তারের বড় ভাই

বিক্ষোভ মিছিলে উপস্থিত ছিলেন নিহত গৃহবধূর বড় ভাই মোহাম্মদ হোসেন রাজিব, আরমগীর, মিজানুর, আরিফুল্লাহ বাহার, শাহেন শাহ, মোশারফ হোসেন, সানমুন, শহিদুল ইসলাম রিমন, আজমান, মুন্না, বাবু, পারভেজ, মোতালিব, মাহাবুব, সাহাদাত, পিয়ার, ফয়সাল, শ্যামল, আনে বেগম, পারুল বেগম, মমতাজ স্বপ্না, নিলয়, সুমাইয়া, মঞ্জু, রেহেনা বেগম, হোসনে আরা, সায়লা, জাহানারা নূরবানু, জুমা ও লাকি প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, গত ৩ বছর পূর্ব বন্দর উপজেলার দক্ষিন চর-ঘারমোড়া এলাকার নাসের মিয়ার ছেলে সজলের সাথে একই এলাকার আলম চাঁন মিয়ার মেয়ে নিপা আক্তারের সাথে পারিবারিক ভাবে বিয়ে হয়। বিয়ের পর তাদের সংসারে একটি সন্তান রয়েছে। এর ধারাবাহিকতায় গত ১ সেপ্টেম্বর যৌতুকের দাবিতে যৌতুক লোভী স্বামী, শ^শুড়, শ^াশুড়ী ভাসুর ও দেবর ক্ষিপ্ত হয়ে গায়ে কেরসিন তেল ঢেল আগুন লাগিয়ে পালিয়ে যায়। পরে অগ্নিদগ্ধ গৃহবধূ ৫ দিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জালড়ে ঢাকা শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু বরণ করে।





এই বিভাগের আরো সংবাদ




Leave a Reply

%d bloggers like this: