আজ: বৃহস্পতিবার | ২১ জানুয়ারি, ২০২১ | ৭ মাঘ, ১৪২৭ | ৭ জমাদিউস সানি, ১৪৪২ | সকাল ১১:৩৫

সংবাদ দেখার জন্য ধন্যবাদ

Home » স্বাস্থ্য » অ্যান্টিবডির আয়ু মাত্র ৭ মাস!

মস্তিষ্কের জন্য কলা ভালো

০৮ জানুয়ারি, ২০২১ | ২:৪০ অপরাহ্ণ | বাংলাদেশ বার্তা | 33216 Views

কলা কেবল স্বাস্থ্যের জন্যই উপকারী নয়, ওজন নিয়ন্ত্রণেও সহায়তা করে। পুষ্টিবিজ্ঞানে কলার উপকারী দিকগুলো বহু আগেই চিহ্নিত করা হয়েছে। সেইসব তথ্য নিয়েই এই আয়োজন। মানসিক স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী কলা। কলা ট্রিপ্টোফান সমৃদ্ধ যা সেরোটোনিনয়ের কাজ করে।

মস্তিষ্কে সেরোটোনিনয়ের অভাবে হতাশার সম্ভাবনা বৃদ্ধি পায়। এছাড়া নানান মানসিক সমস্যা যেমন- হতাশা ও উদ্বেগ দেখা দেয়। কেউ যদি ওজন কমাতে চায় তাহলে সে খাদ্যাভ্যাসে কলা রাখতে পারেন। এর ফলে ৩ গ্রাম আঁশ, ১০০ ক্যালরি থাকে। তাই এটা নাস্তা হিসেবে খুব ভালো। ক্ষুধা মেটাতে ও খাবারের চাহিদা কমাতে দারুণ কাজ করে।

বিজ্ঞানীদের মতে, দিনে কম করে ২৫ গ্রাম ফাইবার খেলে হৃদরোগের আশঙ্কা প্রায় ৪০ শতাংশ কমে যায়। নিয়ন্ত্রণে থাকে কোলেস্টেরল। একটি মাঝারি কলা খেলে দৈনিক এই চাহিদার প্রায় ১২ শতাংশ পূরণ হয়ে যায়।

কলা পটাশিয়াম ও ম্যাগনেশিয়ামের ভালো উৎস। এটা ধীরে ধীরে মস্তিষ্কে শক্তি সরবরাহ করে মনোযোগ বাড়ায়। কলা ক্যালসিয়ামের শোষণ বৃদ্ধি করে। ফলে হাড় শক্ত ও সুস্থ রাখে। প্রয়োজনীয় পুষ্টি ও আঁশের চাহিদা পূরণ করতে একটা কলাই যথেষ্ট। কলা হালকা খাবার হওয়ায় এটা শরীর চর্চার আগে ও পরের নাস্তা হিসেবে খাওয়া যায়। কলা পুষ্টি উপাদানের ভালো উৎস।

তাই স্বাস্থ্য রক্ষায় প্রতিদিন খাবার তালিকায় অন্তত একটি কলা রাখা উচিত। একটি বড় কলা মানে ১২১ ক্যালরি। ১৭ গ্রাম চিনি আছে তাতে। হোক না সে প্রাকৃতিক চিনি, ওজন বাড়ানোর ব্যাপারে তো সে বাজারি চিনির মতোই কাজ করবে। আর ওজন বাড়লে যে হার্টও আর তত ভাল থাকে না, সে তো এখন ওপেন সিক্রেট। তার চেয়ে এতদিন যেমন শোনা গিয়েছিল, কম মিষ্টি ফল খাওয়া ভাল, তেমনই চালিয়ে যাওয়া উচিত, তাই তো?

অ্যামেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশনের মতে, মারাত্মক ওজন বা ডায়াবেটিস না থাকলে রোজ কলা খাওয়া ভাল। কম খরচে এত উপকারি খাবার খুব কমই আছে। কলায় উপস্থিত ফেনল নামের শক্তিশালী অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের প্রভাবে বিভিন্ন ক্রনিক অসুখ, এমনকি, হার্টের অসুখেরও প্রবণতা কমে।

রক্তচাপ বশে রাখতে, হার্টকে সুস্থ রাখতে দিনে চার হাজার ৭০০ মিলিগ্রাম পটাশিয়াম খাওয়া উচিত। বড় একটি কলায় আছে ৪০০ মিলিগ্রাম পটাশিয়াম। কাজেই অন্য পটাশিয়াম সমৃদ্ধ খাবারের পাশাপাশি দিনে একটা করে কলা খাওয়াই যেতে পারে।



Comment Heare

Leave a Reply

Top
%d bloggers like this: