আজ: বৃহস্পতিবার | ৫ আগস্ট, ২০২১ | ২১ শ্রাবণ, ১৪২৮ | ২৫ জিলহজ, ১৪৪২ | সকাল ৭:১৩

সংবাদ দেখার জন্য ধন্যবাদ

Home » আন্তর্জাতিক » ওমান সাগরে ৪ জাহাজ ছিনতাই

সোনারগাঁয়ে রাস্তা সংস্কারে পুকুর চুরি

০৮ জুলাই, ২০২১ | ১২:২৯ পূর্বাহ্ণ | বাংলাদেশ বার্তা | 173 Views

সোনারগাঁ প্রতিনিধি
সোনারগাঁ উপজেলার বৈদ্যের বাজার ইউনিয়নের সংস্কার কাজ শেষ হওয়ার আগেই সুরক্ষা দেয়ালসহ ভেঙে পড়েছে পঞ্চবটি এলাকার রাস্তাটি। মেয়াদোত্তীর্ণ বিটুমিন দিয়ে রাস্তার কাপেটিং করায় এমনটি ঘটেছে বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর। গত মঙ্গলবার নিম্নমানের এ কাজের প্রতিবাদে স্থানীয়রা ঠিকাদারের শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ করেছে। সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার বৈদ্যের বাজার ইউনিয়নের পঞ্চবটি দাড়ারপাড়া এলাকায় ৭০০ মিটার রাস্তা সংস্কারের কাজ চলছে। কাজটি করছেন ঠিকাদার বুলবুল আহমেদের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান প্রগতি এন্টারপ্রাইজ। রাস্তার কার্পেটিং ও সুরক্ষা দেয়ালের কাজ করার তিন দিনের মাথায় তা ভেঙ্গে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। এলাকাবাসী অভিযোগ করে বলেন, কষ্ট ঘুচবে এবং যাতায়াতে সুবিধা হবে এমনটি আশা ছিল আমাদের। কিন্তু কাজ নিম্নমানের হওয়ায় ঝুঁকি বাড়ছে। অল্প বৃষ্টিতে দেবে গিয়ে প্রায় চলাচল অনুপযোগী হয়ে পড়ছে। তাদের অভিযোগ, মেয়াদোত্তীর্ণ বিটুমিন দিয়ে রাস্তার কাপেটিং করার কারণে রাস্তা ভেঙে দেবে গেছে। স্থানীয় বাসিন্দা জহির আহমেদ জানান, আগলা বালিতে ইটা বিছিয়ে কাপেটিং এবং প্যালাসেটিংস না করার কারণে বৃষ্টির পানিতে রাস্তার একপাশ ভেঙে গেছে। নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে সুরক্ষা দেয়াল তৈরি করার সময় এলাকাবাসী বাধা দিয়েছে। কিন্তু কোন বাধা আমলে নেয়নি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। প্রগতি এন্টারপ্রাইজের সত্ত্বাধিকারী বুলবুল আহমেদ বলেন, আমরা মানসম্মত কাজ করেছি। এখানে কোনো প্রকার নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করা হয়নি। রাস্তার পাশে খাল থাকায় এবং খাল থেকে স্থানীয়রা ড্রেজিং করে বালি তোলার কারণে সামান্য বৃষ্টিতে তা দেবে গেছে। কাজটি এমনিতেই লোকসানের মুখে তার উপর ভেঙে যাওয়ায় এখন দ্বিগুণ লোকসান গুনতে হবে। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের (এলজিইডি) প্রধান প্রকৌশলী মো. আরজুরুল হক বলেন, ভৌগলিক কারণে সোনারগাঁয়ে চারিদিকে নদী থাকায় সামান্য বৃষ্টিতে নদী কিংবা খাল পাড়ের রাস্তাগুলি দেবে যায়। আমরা যদি খাল অথবা নদী পাড়ের রাস্তায় মজবুত গাইডওয়াল নির্মাণ করতে পারতাম তবে এ সমস্যার সম্মুখীন হতে হতো না। সরেজমিন তদন্ত করে রাস্তাটি যেন জনবান্ধব হয় সে বিষয়ে গুরুত্ব দেওয়া হবে। বৃষ্টির কারণে যে রাস্তাটি ভেঙ্গে গেছে তা পূণঃসংস্কার না করলে ঠিকাদারকে সম্পূর্ণ বিল দেওয়া হবে না বলেও জানিয়েছেন তিনি।



Comment Heare

Leave a Reply

Top
%d bloggers like this: