আজ: মঙ্গলবার | ২ মার্চ, ২০২১ | ১৭ ফাল্গুন, ১৪২৭ | ১৭ রজব, ১৪৪২ | রাত ৪:০৬

সংবাদ দেখার জন্য ধন্যবাদ

Home » সারাদেশ » ঢাকা বিভাগ » নরসিংদী » নদীতে মিললো কিশোরের লাশ

সোনারগাঁয়ে সংঘর্ষে নিহত ১

২১ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ | ৯:৪২ পূর্বাহ্ণ | বাংলাদেশ বার্তা | 67 Views

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে দফায় দফায় সংঘর্ষ, বাড়িঘর ভাঙচুর লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে ঘটনায় মারা গেছেন সমর আলী (৪৫) নামে এক যুবক আহত হয়েছেন নারীপুরুষশিশুসহ অন্তত ৩০ জন আহতদের মধ্যে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন দুইজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক

শুক্রবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) রাতে এবং শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) সকালে পিরোজপুর ইউনিয়নের নয়াগাঁও গ্রামে আধিপত্য বিস্তার বালু ভরাটকে কেন্দ্র করে ওই গ্রামের হাজী আলাউদ্দিন ব্যবসায়ী সাদেকুর রহমান ওরফে সাদেক মোল্লার গ্রুপের মধ্যে দফায় দফায় এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। নিয়ে এখনও এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) টিএম মোশারফ হোসেন, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (‘সার্কেল) মাহিন ফরাজিসহ জেলা পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ। ঘটনায় উভয় পক্ষের মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে

স্থানীয় লোকজন, প্রত্যক্ষদর্শী পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সোনারগাঁয়ের পিরোজপুর ইউনিয়নের নয়াগাঁও গ্রামের হাজী আলাউদ্দিনের সঙ্গে একই এলাকার ব্যবসায়ী সাদেকুর রহমান ওরফে সাদেক মোল্লার আধিপত্য বিস্তার একটি কোম্পানির বালু ভরাটকে কেন্দ্র করে দ্বন্দ্ব চলে আসছে। ঘটনায় গত শুক্রবার রাত ৮টার দিকে আলাউদ্দিনের নেতৃত্বে কামাল, গোলজার, বাদল, আরিফসহ ২০২৫ জনের একটি দল দেশীয় অস্ত্র, রাম দা, বল্লম, চাপাতি, লোহার রড নিয়ে ব্যবসায়ী সাদেকুর রহমানের দোকানে হামলা চালায়। হামলায় সাদেকুর রহমান, মুক্তিযোদ্ধা বরজাহান, রেখা, তাসলিমা, সায়বা, জাবেদ, জিসানসহ ১০ জনকে কুপিয়ে পিটিয়ে আহত করে। সময় বেশ কয়েকটি ঘরে ভাঙচুর লুটপাটের ঘটনাও ঘটে

ঘটনাকে কেন্দ্র করে শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সাদেকুর রহমানের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে পাল্টা হামলা চালায়। এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। কয়েক দফায় এই ধাওয়াপাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। ঘটনায় আলাউদ্দিন গ্রুপের সমর আলী, জাহিদুল ইসলাম, মাহিলউদ্দিন, মোশারফ, নুর নবী, নিলা, দেলোয়ার হোসেন, আব্দুল আলীসহ জন এবং সাদেক গ্রুপের পক্ষের খোরশেদ আলম, সাইদুল ইসলাম, জহিরুল ইসলাম, বিপ্লব, সুমন, শাকিল, মাহফুজ, ছোট সুমনসহ ১২ জন আহত হয়। এদের মধ্যে আলাউদ্দিন পক্ষের সমর আলী সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পর মারা যান

স্থানীয় লোকজনের সাথে কথা বলে জানা যায়, এই দুই গ্রুপের দ্বন্দ্ব বেশ পুরোনো। গত ঈদুল আযহার আগের দিনও তাদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনায় বিশের অধিক ব্যক্তি আহত হয়। হাজী আলাউদ্দিনের ছেলে পুলিশ সদস্য হওয়ার কারণে তিনি প্রভাব বিস্তার করেন এলাকায়। অন্যদিকে ব্যবসায়ী সাদেকুর রহমানও এলাকায় প্রভাব বজায় রাখতে চান

তবে সাদেকুর রহমান ওরফে সাদেক মোল্লার স্ত্রী শেফালী বেগমের অভিযোগ, পূর্ব শত্রুতার জেরে তার স্বামীর দোকানে অতর্কিত হামলা চালানো হয়। এই হামলা আলাউদ্দিনের নির্দেশে করা হয়। এতে তার স্বামী রক্তাক্ত জখম হয়েছেন। বাড়িঘরে ভাঙচুর লুটপাট চালানোরও অভিযোগ করেন শেফালী বেগম

এদিকে হাজী আলাউদ্দিন বলেন, প্রতিপক্ষের লোকজন তার আত্মীয় সমর আলীকে কুপিয়ে হত্যা করেছে। এর আগেও তার ভাতিজাকে হত্যা করা হয়েছে বলেও অভিযোগ তার। তিনিও তার বাড়িঘরে হামলা, ভাঙচুর লুটপাটের অভিযোগ করেন।
বিষয়ে সোনারগাঁ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) খন্দকার তবিদুর রহমান বলেন, সকালে ঘটনার পর থেকে এখন পর্যন্ত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে। থানা পুলিশসহ অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে এলাকায়। জেলার উর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে রয়েছেন

তিনি আরও বলেন, এখন পর্যন্ত একজন নিহত দশজন আহতের খবর রয়েছে পুলিশের কাছে। সকালের ঘটনায় দুইজনকে সন্দেভাজন হিসেবে ঘটনাস্থল থেকে আটক করা হয়েছে। হাজী আলাউদ্দিনের পক্ষ থেকে একটি মামলা করা হয়েছে



Comment Heare

Leave a Reply

Top