আজ: মঙ্গলবার | ১৩ এপ্রিল, ২০২১ | ৩০ চৈত্র, ১৪২৭ | ৩০ শাবান, ১৪৪২ | সকাল ৬:৪৫

সংবাদ দেখার জন্য ধন্যবাদ

Home » জাতীয় » মিতা হকের মৃত্যু শোকাহত রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রী

হকারদের সড়ক দখলের আবদার

০৩ মার্চ, ২০২১ | ১:৫০ পূর্বাহ্ণ | বাংলাদেশ বার্তা | 122 Views

নগরবাসীকে জিম্মি করে হকাররা আবারো ফুটপাত দখলের পায়তারা করছে। প্রশাসনকে হুমকি দেয়ার লক্ষে তারা গতকাল মঙ্গলবার শহরে বিক্ষোভ করে। পুনর্বাসন ছাড়া হকার উচ্ছেদ চলবে না’ এরকমই শ্লোগানে শহরে প্রধান সড়কে বিক্ষোভ মিছিল করলেও পুলিশ অনেকটাই নিরব ভ’মিকায় ছিল। নারায়ণগঞ্জ হকার্স সংগ্রাম পরিষদ।  গতকাল মঙ্গলবার বিকালে চাষাঢ়া শহীদ থেকে নারায়ণগঞ্জ জেলার হকার নেতৃবৃন্দরা মিছিল শুরু করে, পরবর্তীতে সেখান থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল নগরীর ২নং রেল গেইট হয়ে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে সমাবেশ করেন হকার নেতারা। এ সময় হকার্স সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি আব্দুর রহিম মুন্সি বলেন, সারা বাংলাদেশে হকারদের জন্য পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করে তাদের উচ্ছেদ করা হয়েছে। কিন্তু নারায়ণগঞ্জের হকারদের মতো কোথাও এই ভাবে নির্যাতন হয় না। পুরো নারায়ণগঞ্জে অলি গলিতে হকার বসছে কিন্তু অভিযান শুধু চাষাঢ়ার মধ্যেই হয়, এটা কেনো করছেন। মেয়রের কাছে আবেদন আপনি হকারদের পুনর্বাসন করে তারপর হকার উচ্ছেদ করুন। গরিবের পেটে লাথি আল্লাহও পছন্দ করে না, কিন্তু আপনি সেই কাজ করছেন, এটা মোটেও ভালো কাজ হচ্ছে না। চাষাঢ়ার হকারদের উপর এই নির্যাতন বন্ধ করেন, তাছাড়া যদি দিনের বেলায় সমস্যা হয়, তাহলে সন্ধ্যার পর হকার বসতে দেন। প্রয়াত নাসিম ওসমান ডিসি মহোদয়কে বলেছিলেন পুরো নারায়ণগঞ্জে হকার বসরে চাষাঢ়াও হকার বসবে। আজ সে নাই বলে আমরা অসহায় হয়ে পরেছি। আমাদের বসতে দেন নয়তো পুনর্বাসন করে দেন। হকার্স সংগ্রাম পরিষদের আহ্বায়ক আসাদুল ইসলাম বলেন, ইতিমধ্যে আমরা বিভিন্ন দপ্তরে স্বারকলিপি দিয়েছি, আমাদের দাবি গুলো পেশ করেছি, কিন্তু কেউ আমাদের দিকে নজর দিচ্ছে না।  তবে জানিনা কোন অদৃশ্য শক্তির কারণে চাষাঢ়া সোনালি ব্যাংক থেকে ব্যাংকের মোড় পর্যন্ত হকারদের নির্যাতন করা হচ্ছে। আপনারা শহরকে সিংগাপুর মালেশিয়া বানাবেন তাতে আমাদের কোনো সমস্যা নাই, আমরাও চাই এটা হোক।কিন্তু তার আগে এই হকারদের পুনর্বাসন করুন। আমি জানতে চাই কেনো আমাদের নিয়ে বসা হচ্ছে না, আমাদের পুনর্বাসন করা করা হচ্ছে না। ওনারা বলেছিলো জায়গা ঠিক করে দিতে আমরা বলেছিলাম হকার্স মার্কেটকে বহুতল ভবন করে দিন।  আপনারা বলেন ফুট পাতে হকার বসলে মানুষের চলাফেরা করতে সমস্যা হয়, তাহলে ফুটপাতের জায়গা দখল করে চুনকা পাঠাগার করছেন, সেটা কি সমস্যা হয় না, এভাবে আরও অনেক স্থানে এমনটা করা হয়েছে এ নিয়ে প্রশাসনের কোনো মাথা ব্যথা নাই। আমাদের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা না করে যদি উচ্ছেদ করা হয় তাহলে আমাদের এই বিক্ষোভ কর্মসূচি চলতে থাকবে, এবং পরবর্তীতে পর্যায়ক্রমে আমাদের কর্মসূচি চলতে থাকবে। প্রয়োজনে সকাল সন্ধ্যা এই বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করবো। হকার্স সংগ্রাম পরিষদের আহ্বায়ক আসাদুল ইসলাম আসাদের সভাপতিত্বে হকার্স সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি রহিম মুন্সির নেতৃত্যে সকল স্তরের হকারটা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।



Comment Heare

Leave a Reply

Top
%d bloggers like this: